সীতাকুন্ডতে দুই কিশোরী ও ত্রিপুরা রাজ্যের লহরী দেববর্মার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনায় প্রদীপ প্রজ্জ্বলন

প্রতিনিধি, খাগড়াছড়ি:: চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডতে দুই ত্রিপুরা কিশোরী ও ত্রিপুরা রাজ্যের লহরী দেববর্মার বিদেহী আত্মার চিরশান্তি কামনা করে খাগড়াছড়িতে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন কর্মসূচি পালন করেছে  সামাজিক সংগঠন ত্রিপুরা স্টুডেন্টস্ ফোরাম, খাগড়াছড়ি সদর শাখার নেতৃবৃন্দ। আজ সন্ধ্যায় খাগড়াপুর ককবরক লাইব্রেরীর প্রাঙ্গনে  কর্মসূচির শুরুতে নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের অন্যতম সদস্য, শিক্ষানুরাগী, বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক খগেশ্বর ত্রিপুরা। এছাড়াও অন্যদের মধ্যে খাগড়াপুর মহিলা কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক, নারীনেত্রী মিজ শাপলা দেবী ত্রিপুরা, ত্রিপুরা স্টুডেন্টস্ ফোরাম, বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি দেবাশীষ ত্রিপুরা।

সভাপতিত্ব করেন ত্রিপুরা স্টুডেন্টস্ ফোরাম,  খাগড়াছড়ি জেলা সদর শাখার সভাপতি যদুনাথ ত্রিপুরা এবং সঞ্চালনা করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নক্ষত্র ত্রিপুরা। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যান সংসদ খাগড়াছড়ি সদর আঞ্চলিক শাখার সভাপতি কাজল বরন ত্রিপুরাসহ, বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীবৃন্দসহ প্রগতিশীল ছাত্র সমাজের প্রতিনিধি, বিভিন্ন পেশাজীবি ও জনসাধারণসহ প্রায় দেড় শতাধিক ত্রিপুরা আদিবাসী জনগোষ্ঠী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

বক্তারা বলেন,  অবিলম্বে চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডতে দুই  ত্রিপুরা কিশোরীকে ধর্ষণ ও ধর্ষণের পর গলায় ফাঁসি দিয়ে হত্যাকারী মোঃ আবুল হোসেন কে ফাঁসি ও হত্যাকারীর সাথে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেফতার পূর্ব কফাঁসি দাবি ও ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানী আগরতলার সর্ববৃহৎ শপিং মহল “বিগ বাজার” চুরি অপবাদ দিয়ে মানসিক, অত্যাচারিত এবং অধ্যয়নরত বিদ্যালয় থেকে বিতাড়িত হওয়ায় মেধাবী ছাত্রী লাহরী দেববর্মা আত্মহত্যা ঘটনার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের সুষ্ঠ তদন্তের জন্য জোর দাবি জানান।

প্রসঙ্গত: গত ১৮মে (শুক্রবার) বিকালে চট্টগ্রামের সীতাকুন্ড উপজেলার পৌরসদরস্থ ৫নং ওয়ার্ড-এর জঙ্গল মহাদেবপুর এলাকার দুই ত্রিপুরা কিশোরীকে নৃশংসভাবে হত্যা এবং   গত ২৫ মে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানী আগরতলার সর্ববৃহৎ শপিং মহল “বিগ বাজার” চুরি অপবাদ দিয়ে মানসিক, অত্যাচারিত এবং অধ্যয়নরত বিদ্যালয় থেকে বিতাড়িত হওয়ায় মেধাবী ছাত্রী লাহরী দেববর্মা আত্মহত্যা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*