মাটিরাঙ্গায় ফার্মেসীর কক্ষে কিশোরী ধর্ষনের অভিযোগে পল্লী চিকিৎসক আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক : খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় ফার্মেসীর কক্ষে ১৫ বছরের এক কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক মো. রফিকুল ইসলাম (৩৯) কে আটক করেছে মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে খেদাছড়া এলাকায় ধর্ষিতার বাবা মো. হারুন খাঁ বাদী হয়ে মাটিরাঙ্গা থানায় একটি মামলা দায়ের করলে রাতেই পুলিশ তাকে আটক করে শুক্রবার আদালতে প্রেরণ করে। আটক মো. রফিকুল ইসলাম   খেদাছড়া ডিপি পাড়ার মো. আবুল কাশেমের ছেলে।

ধর্ষিতার বাবার অভিযোগ পত্রে উল্লেখ করেন, বুধবার সন্ধ্যার দিকে শারীরিক সমস্যা নিয়ে ধর্ষিতা তার ছোট ভাইকে নিয়ে খেদাছড়া বাজারের পল্লী চিকিৎসক মো. রফিকুল ইসলামের দোকানে আসলে স্যালাইন দেয়ার কথা বলে ফার্মেসীর পেছনের কক্ষে নিয়ে এস্যালাইন দিয়ে শুইয়ে রাখে। এক পর্যায়ে স্যালাইন শেষ হতে বিলম্ব হবে জানিয়ে মেয়েটি তার দোকানেই রাত্রি যাপনের এক পর্যায়ে মধ্যরাতে তাকে ঘুমের ট্যাবলেট সেবন করায়। এসময় ধর্ষক তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে হাত দিলে তার মেয়ে চিৎকার করলে তাকে হত্যার হুমকি প্রদান করে ধর্ষক। পরে রাতে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করে। ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয়ভাবে মিমাংসার উদ্যোগ নেয়া হলেও অভিযোগের ভিত্তিতে মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশ পল্লী চিকিৎসক মো. রফিকুল ইসলামকে আটক করে।

এবিষয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সুনীল চন্দ্র সুত্রধর জানান, ধর্ষিতার বাবার অভিযোগের প্রেক্ষিতে ধর্ষক মো. রফিকুল ইসলামকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এদিকে খাগড়াছড়ি জেলা সদর হাসপাতালে ধর্ষিতার মেডিকেল পরীক্ষা করানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*