মহালছড়িতে নৌকার ১ জয়, ইউপিডিএফ-২, জেএসএস সংস্কার-১

Panনিজস্ব প্রতিবেদক: খাগড়াছড়ির মহালছড়ির ৪টি ইউনিয়নে ক্ষমতাসীন  দল আওয়ামীলীগ জয় পেয়েছে মাত্র ১টিতে। তার বিপরীতে অপর তিন ইউনিয়নে পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠন ইউপিডিএফ-২টি ও জেএসএস (সংস্কার) জয় পেয়েছে-১টিতে।

শনিবার (২৩ এপ্রিল) দিনভর ভোট গ্রহণ ও গণনার পর বেসরকারি ফলাফল ঘোষনায় দেখা যায়, মহালছড়ি সদর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ প্রার্থী রতন শীল (নৌকা) ৬৪৫৯ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী জেএসএস সংস্কার সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী সুখময় চাকমা (আনারস) প্রতীকে পেয়েছেন-৩৪৮৪ভোট।

মাইসছড়ি ইউনিয়নে ইউপিডিএফ সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী সাজাই মারমা (আনারস) প্রতীকে ৩১৬৪ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী গিয়াস উদ্দিন (নৌকা) প্রতীকে পেয়েছেন-২৫৬৮ ভোট।

অপরদিকে, মুবাছড়ি ইউনিয়নে জেএসএস সংস্কার সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী বাপ্পী খীসা (আনারস) প্রতীকে ২৯৬৪ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি আওয়ামীলীগ সমর্থিত কংজরী চৌধুরী নৌকা প্রতিকে পেয়েছেন-১১৪৫ভোট।

এদিকে, ক্যায়াংঘাট ইউনিয়নে ইউপিডিএফ সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী বিশ্বজিত চাকমা (আনারস) প্রতীকে ১৫৫৩ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী জেএসএস সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রাথী সুনীল জীবন চাকমা (ঘোড়া প্রতীকে ৮৬২ ভোট পান।

প্রসংগত: উপজেলার চারটি ইউনিয়নে মোট চেয়ারম্যান প্রার্থী ছিল ১৬জন। তন্মধ্যে ক্যায়াংঘাট ইউপিতে-৮জন, মহালছড়ি ইউপিতে-৩জন, মাইসছড়ি ইউপিতে-৩জন ও মুবাছড়ি ইউপিতে-২জন। এ ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ প্রার্থী-৪জন, বিএনপি-২জন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ১০জন। সংরক্ষিত ওয়ার্ডে নারী সদস্য-৪০জন, সাধারন ওয়ার্ড প্রার্থী-১২২জন, বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় সংরক্ষিত ওয়ার্ডে নির্বাচিত-০১জন ও সাধারন ওয়ার্ডে-০৪জন নির্বাচিত। ৪টি ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা-২৯৫০০জন, পুরুষ-১৫২৯২, মহিলা-১৪২০৮ । মোট ভোট কক্ষ-৯৪টি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*