প্রতিপক্ষের হামলায় আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আহত: দোকান-গাড়ী ভাংচুর: নারীসহ আহত-৩

নির্মলেন্দু চৌধুরীমুহাম্মদ আবুল কাসেম: খাগড়াছড়িতে প্রতিপক্ষের অতর্কিত হামলায় আহত হয়েছেন জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক  ও পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য নির্মলেন্দু চৌধুরী। আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার দিকে নারিকেল বাগানস্থ জেলা আওয়ামীলীগের কার্যালয় সম্মুখে ওয়ালটন শো’রুমের সামনে তার উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা আহত অবস্থায়  তাঁকে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে প্রেরণ করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে (চমেক) প্রেরন করেছেন। এ ঘটনায় আবারো উত্তপ্ত হয়ে পড়েছে খাগড়াছড়ির রাজনৈতিক অঙ্গন। প্রতিবাদে শহরে বিক্ষোভ করেছে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মী (এমপি গ্রুপ)। ভাংচুর হয়েছে দোকানপাট সহ ৩টি যাত্রীবাহি জীপগাড়ী ও আহত হয়েছে নারী শিশুসহ ৩জন নিরীহ  মানুষ। শহরে মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।
লাঠি মিছিল ভাংচুরপুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, সকালে পার্বত্য জেলা পরিষদ যাওয়ার পথে নির্মলেন্দু চৌধুরীকে প্রতিপক্ষের ৭/৮ জন নেতাকর্মী গতিরোধ করে  মারধর চালায়। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করে। এদিকে,  ঘটনার  পর পরই আহত  নির্মলেন্দু চৌধুরীকে দেখতে হাসপাতালে ছুটে যান খাগড়াছড়ি জেলার সাংসদ কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা। এসময় তিনি এ হামলায় আওয়ামীলীগ নেতা জাহেদুল আলম ও তার ভাই পৌর মেয়র রফিকুল আলমকে দায়ী করেছেন। তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পৌর মেয়র রফিকুল আলম।
অপরদিকে, পাজেপ সদস্য আওয়ামীলীগ নেতা  নির্মলেন্দু চৌধুরীর  উপর হামলার প্রতিবাদে দুপুরে  কদমতলী এলাকা হতে লাঠিসোটা নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল বের করে আওয়ামীলীগের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা (এমপি গ্রুপ)। বিক্ষোভ মিছিলটি নারিকেল বাগানস্থ  আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে  সামনে পৌছলে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা আওয়ামীলীগ  অফিস সংলগ্ন সুকুমার স্টোরে ইটপাটকেল ছুড়ে হামলা চালিয়ে ভাংচুর চালায়। পরে পুলিশী  পাহারায় মিছিলটি ফেরার পথে  কামার পল্লী প্রবেশ মুখে  ৩টি জীপ গাড়ী ভাংচুর চালায়।

আহতএ সময় গাড়ীর  কাঁচের আঘাতে ১ শিশু ও নারীসহ ৩জন নিরীহ  যাত্রী  আহত হয়। আহতরা হলেন-দীঘিনালা  ৮মাইল নতুন পাড়া এলাকার  আলী কুমার ত্রিপুরা (৫৫), ছোট গাছবান এলাকার   সবিতা ত্রিপুরা (৩০) ও দীঘিনালার  রথিচন্দ্র এলাকার অমিন্দ্র ত্রিপুরা (৪০)। ভাংচুরকৃত জীপ গাড়ী নং-ঢাকা-ক-৪৩৭৭, ঢাকা-ড-১৫৩৭ ও রাঙামাটি-ব-১৬০৬। আহতরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ী ফিরে যান।
এদিকে, পাজেপ সদস্য নির্মলেন্দু চৌধুরীর উপর ন্যাক্কারজনক  সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে  দোষীদের গ্রেফতার পূর্বক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, পাজেপ সদস্য, শিক্ষানুরাগী খগেশ্বর ত্রিপুরাসহ একাধিকজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*