‘পোট্রেট’ এর দায়িত্ববোধই বিশ্ব মানচিত্রে পর্যটন নগরী খাগড়াছড়ি শীর্ষস্থান অর্জন করবে: কংজরী

potrateমুহাম্মদ আবুল কাসেম: খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী বলেছেন, পোট্রেট এর সকল সদস্যদের আন্তরিকতা ও দায়িত্ববোধের পরিচয়ে পার্বত্য খাগড়াছড়ি জেলা অতিশীঘ্রই বিশ্ব মানচিত্রে পর্যটন নগরী হিসেবে শীর্ষস্থান অর্জন করবে। এ সংগঠনের আন্তরিক প্রচেষ্ঠায় খাগড়াছড়ির পর্যটন শিল্প আরো বেশি বিকশিত হবে। তিনি গতকাল (শুক্রবার) সন্ধ্যায় জেলা শহরের শান্তিনগরস্থ বানক’র অডিটরিয়মে অনুষ্ঠিত ‘পোট্রেট ৬ষ্ঠ ফটোগ্রাফি কানির্ভাল’ এর পর্যটন শিল্প বিকাশে আলোকচিত্রের ভূমিকা শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, নৈস্বর্গিক লীলাভূমি পর্যটন নগরী খাগড়াছড়ির দুর্গম পাহাড়ী এলাকায় যেসব দর্শনীয় স্থান রয়েছে তা  পোট্রেট মাধ্যমে দেশে-বিদেশে ছড়িয়ে পড়লে এ অঞ্চলের পর্যটন শিল্প বিকশিত হবে। তিনি আরো বলেন, ২০১৪সালে স্থানীয় পর্যটন এলাকা খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদে হস্তান্তরের পর পর্যটকদের বিনোদনের জন্য খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ প্রতিষ্ঠিত করা হয়। ইতোমধ্যে পরিষদ পার্কে শিশুদের বিনোদনের জন্য দু’টি ট্রেন দেয়া হয়েছে। অতিশীঘ্রই এ পার্কে একুরিয়াম, মিনি চিড়িয়াখানা, রিচাং ঝর্ণা এলাকায় ক্যাবল কার স্থাপনসহ দুধকছড়া ঝর্ণা সংস্কার করা হবে। এসময় তিনি দায়িত্ববোধ থেকে খাগড়াছড়ি জেলায় পোট্রেট’র ২৬জন ফটোগ্রাফির আগমন করায় আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়ে দেশী-বিদেশী পর্যটকদের কাছে খাগড়াছড়ি জেলাকে আরো বেশী আকর্ষনীয় করে উপস্থাপন করতে সকলকে আহবান জানান। এসময় তিনি আগামীতে পার্বত্য জেলা পরিষদের উদ্যোগে এ সংগঠনের সদস্যদের নিয়ে জেলার দর্শনীয় স্থান পরিদর্শন করা হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

পোট্রেটের পরিচালক রুপম চক্রবর্ত্তীর সঞ্চালনায় ও বেসরকারি টেলিভিশন মাছরাঙার খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি কানন আচার্য্যের সভাপতিত্বে সেমিনারে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন আলোকচিত্রী সাইফুল ইসলাম। মূল প্রবন্ধে তিনি বলেন, এক সময় খাগড়াছড়ি পর্যটকদের জন্য নিরাপদ ছিল না। বর্তমানে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রচেষ্ঠায় খাগড়াছড়ি জেলা নিরাপদ জেলায় পরিণত হয়েছে এবং সেনাবাহিনী এ অঞ্চলে পর্যটন শিল্পের বিকাশ ঘটিয়েছেন। সেমিনারে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নারী আলোকচিত্রী নাছিমা আকতার, চট্টগ্রামের আলোকচিত্রী কে.ইউ মাসুদ ও আলোকচিত্রী আনোয়ার হোসেন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির গবেষক চিংলামং চৌধুরী।

উল্লেখ্য, সেমিনারে দেশের বিভিন্ন জেলা হতে আগত ২৬জন আলোকচিত্রী অংশ নেয়। আজ শনিবার ২৬জনের এ টীম পর্যটন এলাকা সাজেক গমন করবেন এবং দর্শনীয় স্থান সমূহ ফ্রেমে বন্দি করে বিকালে খাগড়াছড়ি  জেলায় ফেরার কর্মসূচি রয়েছে বলে সেমিনারের জানানো হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*