পিতা-পুত্র হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে খাগড়াছড়িতে আওয়ামীলীগের একাংশের বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক: ‘খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার নুনছড়ি থলিপাড়ার বাসিন্দা চিরজিৎ ত্রিপুরা ও কর্ণ ত্রিপুরার নৃশংস হত্যাকারী খোকনেশ্বর ত্রিপুরা ও মংশিপ্রু চৌধুৃরী অপু’র নেতৃত্বে হত্যাকারীদের ফাঁসি চাই’ এই দাবিতে আজ শুক্রবার দুপুরে খাগড়াছড়ি জেলা শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে জেলা আওয়ামীলীগের একাংশ।

শুক্রবার দুপুরে কড়া পুলিশী নিরাপত্তায় নারিকেল বাগানস্থ দলীয় কার্যালয় হতে বিক্ষোভ মিছিলটি বের হয়ে হাসপাতাল গেইট এলাকায় গিয়ে প্রতিবাদ সমাবেশে মিলিত হয়। প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে এ হত্যাকান্ডের হত্যাকারীদের গ্রেফতার পূর্বক শাস্তির দাবীতে ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দেন বিক্ষোভকারীরা। এসময় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের শিক্ষা ও মানব বিষয়ক সম্পাদক দিদারুল আলম ও ছাত্রলীগ নেতা হৃদয় মারমা।

এসময় আওয়ামীলীগ নেতা দিদারুল আলম এ হত্যাকান্ডের জন্য পুলিশ প্রশাসনের নিকট  মামলা রুজুর আহবান জানিয়ে বলেন, চিরঞ্জিত ত্রিপুরা ও তার পুত্র কর্ণ ত্রিপুরাকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। তিনি জেলার সাংসদ কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরাকে ইঙ্গিত করে আরো বলেন, এ হত্যার মধ্য দিয়ে আগামী নির্বাচনে বৈতরনী পার করার যে অপপ্রয়াস, আমারতো মনে হয় না উনি সেই পার পাবেন’। তিনি আইনগত ব্যবস্থা নেয়াসহ খুনীদের গ্রেফতার পুর্বক শাস্তির দাবী জানান। এর আগে জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হৃদয় মারমা প্রশাসনের প্রতি ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম ছুড়ে দেন।
এদিকে, এ বিষয়ে খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের যুব বিষয়ক সম্পাদক ও পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য মংসুইপ্রু চৌধুরীর নিকট জানতে চাহিলে তিনি এ প্রতিনিধির ওপর রাগান্বিত ও ক্ষোভ ঝেঁড়ে বলেন, আপনারা ব্যানারটা দেখেন, কি লেখা আছে, কতটুকু ছোট মনের মানুষ ও মুর্খ্যতার পরিচয় ঘটিয়েছে তারা। তিনি এই নৃশংস হত্যাকান্ড নিয়ে অপরাজনীতি না করে প্রকৃত খুনীদের চিহ্নিত এবং গ্রেফতার পূর্বক শাস্তি  নিশ্চিতকরণে প্রশাসনকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়ার আহবান জানান। তিনি আরো বলেন, খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগ আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল ও সরকারের ভাবমূর্তি রক্ষার্থে এ নৃশংস হত্যাকান্ডের প্রকৃত দোষীদের গ্রেফতারে প্রশাসনকে সহযোগিতা করার অনড় অবস্থানে।  বিভিন্ন প্রচার মাধ্যমে ইতোমধ্যে এ নৃশংস হত্যাকান্ডের বিষয়ে পুলিশ প্রশাসন ও স্থানীয়দের বরাত দেয়া হয়েছে। তিনি নৃশংস এমন হত্যাকান্ড নিয়ে রাজনীতি না করে  এসব অপরাজনীতির বিষয়ে জেলাবাসীকে ও প্রশাসনকে সজাগ থাকার জন্য আহবান জানিয়েছেন।

অপরদিকে, পাজেপ সদস্য খোকনেশ্বর ত্রিপুরা বলেন, এমন নৃশংস হত্যাকান্ডের বিষয়ে অপরাজনীতি তথা বিক্ষোভ মিছিল করে একটি চক্র প্রকৃত দোষী ও খুনীদের আড়াল করার অপচেষ্ঠা চালাচ্ছে। তিনি এ হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক প্রকৃত খুনীদের গ্রেফতারের আহবান জানিয়েছেন।

প্রসংগত: বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে খাগড়াছড়ির দুর্গম নুনছড়ির থলিপাড়া এলাকায় সামাজিক বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় চিরজিৎ ত্রিপুরা (৫৫) নিহত হন এবং আশংকাজনক অবস্থায় খাগড়াছড়ি হাসপাতালে আনার পর তার পুত্র কর্ণ ত্রিপুরা (৩০) নিহত হন। আহতরা হলেন, চিরঞ্জিত ত্রিপুরার স্ত্রী ভবেলক্ষী ত্রিপুরা (৪৫) ও পুত্রবধূ বিজলী ত্রিপুরা (২৮)।  পরিবারের পক্ষ হতে অভিযোগ করা হয়েছে, ইউপি সদস্য কালিবন্ধু ত্রিপুরার নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী এই হামলা চালিয়েছে। খবর পেয়ে সেনাবাহিনী ও পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত ও আহতদের উদ্বার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে।  খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার আলী আহমেদ খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*