পার্বত্যচট্টগ্রাম কমপ্লেক্স: বৈষম্যের প্রতিবাদ জানিয়েছে দুই বাঙালি সংগঠন

cht complexনিজস্ব প্রতিবেদক: আগামী ৮ মে রাজধানীর বেইলি রোডস্থ ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম কমপ্লেক্স’-এর নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তুর অনুষ্ঠানে তিন পার্বত্য জেলা হতে যোগদানের জন্য সম্প্রতি পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে শুধুমাত্র ক্ষুদ্র-নৃগোষ্ঠির(উপজাতিদের)কে আমন্ত্রন করা এবং সরাসরি বৈষম্য  সৃষ্টি করার প্রতিবাদ জানিয়েছে পার্বত্য বাঙালী ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটি এবং  পার্বত্য নাগরিক পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ।

বুধবার পার্বত্য নাগরিক পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির অফিস সম্পাদক মো. খলিলুর রহমান স্বাক্ষরে এক বিবৃতিতে উল্লেখ করেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের এই আদেশ শীঘ্রই বাতিল করে ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম কমপ্লেক্স’ নির্মাণ কাজের অনুষ্ঠানে তিন পার্বত্য জেলা থেকে সম-সংখ্যক পাহাড়ি-বাঙালি অর্ন্তভুক্তির দাবী করেন। অন্যথাায় আগামী ৬-৮ তারিখ তিন র্পাবত্য জেলায় হরতালসহ কঠিন কর্মসূচীর হুসিয়ারী দেন  নেতৃবৃন্দ। এ লক্ষ্যে সকল বাঙ্গালী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ কে নিয়ে বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় পল্টনের ফটোজার্নালিষ্ট বিল্ডিং এক জরুরী সভা আহবান করা হয়েছে বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।

বিবৃতিতে আরো উল্লেখ করা হয়, এ বিষয়ে বুধবার সকাল ১১টায় রাজধানীতে এক বৈঠক পার্বত্য নাগরিক পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার আলকাছ আল মামুন ভুঁইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্যনাগরিক পরিষদের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ মো. রাজু, পার্বত্য বাঙালী ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাব্বির আহমেদ, ছাত্র পরিষদের সেক্রেটারী সারোয়া জাহান খান, ঢাকা মহানগর কমিটির সভাপতি সাহাদাত হোসেন সাকিব,সেক্রেটারী এডভোকেট সারোয়ার প্রমুখ ।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ জানান, রাজধানীর বুকে এক খন্ড পার্বত্য চট্টগ্রাম তথা ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম কমপেক্স ’ এ যেন তিন পার্বত্যবাসীর স্বপ্ন বাস্তবায়ন হতে চলছে। এমনকি  নির্মাণ কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অথচ এ অনুষ্ঠানে তিন পার্বত্য জেলা হতে যোগদানের জন্য  পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে শুধুমাত্র ক্ষুদ্র-নৃগোষ্ঠিকে(উপজাতি) তালিকাভূক্ত করা হয় । যা ৭ এপ্রিল পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উন্নয়ন শাখার উপ-সচিব বিদুষী চাকমা স্বাক্ষরিত এক  আদেশে পার্বত্য চট্টগ্রাম কমপ্লেক্স’র ভিত্তি প্রস্তুর অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে  ক্ষুদ্র নৃ- গোষ্ঠী’র ২শজনের (১শজন পুরুষ, ১শ মহিলা) তালিকা প্রস্তুত করে আগামী ৬মে ঢাকায় নেয়া, তাদের আবাসন সহ খাবারের ব্যবস্থা গ্রহণে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে তিন পার্বত্য জেলা পরিষদ বরাবর আদেশপত্রে জানা যায়। বক্তারা বলেন, পার্বত্য চুক্তিতে অনেক জায়গায় বৈষম্য থাকলেও প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠানে শুধুমাত্র বাঙালি হবার কারণে কাউকে আমন্ত্রণ তালিকা থেকে বাদ দেয়ার এই হীনমন্যতা ও  সাংবিধানিক অধিকার লঙ্ঘনের শামিল।এতে করে উপজাতি ও বাঙ্গালীদের মাঝে বিরাজমান সম্প্রীতি বিনষ্টের পায়তারা চলছে বলে বৈঠকে বক্তারা উল্লেখ করেন ।
বৈঠকে আলকাছ আল মামুন ভূঁইয়া  বলেন, সরকারের এ ধরনের মহতি ও প্রশংসনীয় উদ্যোগে কে  মন্ত্রণালয়ের ভেতরকার একটি অপশক্তি সম্প্রদায়গত বিভাজন করে সরকারের প্রকৃত উদ্দেশ্য বাঁধাগ্রস্ত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*