‘পদের আগে বহিস্কৃত’ লেখায় খাগড়াছড়িতে প্রথম আলোতে অগ্নিসংযোগ, প্রতিবাদ-বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রকাশিত সংবাদে নাম ও পদবির পূর্বে ‘বহিস্কৃত’ শব্দ উল্লেখ করায় খাগড়াছড়িতে জাতীয় দৈনিক ‘প্রথম আলো’ পত্রিকায় অগ্নি সংযোগ ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে বিক্ষুব্ধ আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগ  এবং আওয়ামীলীগ নেতা দিদারুল আলমের সমর্থকরা।

শনিবার সকালে জেলা শহরের শাপলা চত্বরে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা প্রথম আলো পত্রিকায় অগ্নিসংযোগ করে প্রতিবাদ সমাবেশে মিলিত হয়। এর আগে নারিকেল বাগানস্থ দলীয় কার্যালয় হতে ছাত্রলীগ, যুবলীগসহ সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল বের করে।

প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা প্রথম আলো পত্রিকার সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষন করে বলেন, গত ৯ ফেব্রুয়ারি ‘দৈনিক প্রথম আলো’ পত্রিকার চট্টগ্রাম (৭) নং পাতায় বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার কারাদন্ডের বিষয়ে প্রকাশিত এক সংবাদে সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদক খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি সমীর দত্ত ও শিক্ষা-মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক দিদারুল আলমের পদ ও নামের আগে ‘বহিস্কৃত’ শব্দ জড়িয়ে দিয়ে মিথ্যাচার ও তথ্য বিভ্রাট করে জনপ্রিয় নেতার মানহানিসহ ধুম্রজাল সৃষ্টি করেছেন। তাদের দাবি, কোন প্রকার আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক তথ্য উপাত্ত, ডকুমেন্টরী ব্যতিরেকে বহুল প্রকাশিত পত্রিকাটিতে ‘বহিস্কৃত’ শব্দ জড়িয়ে দেয়া একটি গোষ্ঠির এজেন্ডা বাস্তবায়ন করার অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে। অথচ এ জেলায় আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় ও জাতীয় কর্মসূচি পালনে আওয়ামীলীগ পরীক্ষিত ও আদর্শিত নেতা দিদারুল আলম নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন, যা জাতীয় দৈনিকসহ ইলেকট্রনিক্স বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রকাশিত হয়ে আসছে। এসময় বক্তারা অবিলম্বে সংবাদটি সংশোধনীসহ বিধিমতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জোর দাবি জানান।

প্রতিবাদ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক জহির উদ্দিন ফিরোজ, ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি ফারুক আহমেদ, শ্রমিকলীগ নেতা নুরুন্নবী ও শহর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ফরিদ-উজ-জামান স্বাধীনসহ প্রমূখ।

এদিকে, এ বিষয়ে জেলা আওয়ামীলীগ নেতা দিদারুল আলম বলেন, বিষয়টি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। যা অতীব দু:খজনক। তিনি বলেন, বিগত ২ বছর যাবতও কয়েকটি পত্রিকায় খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের ত্যাগী নেতাকর্মীদের নিয়ে মানহানিকর তথ্য উপাত্ত পরিবেশন করে আসছে। যা বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনকে কলুষিত করছে। তিনি প্রকাশিত সংবাদটি সংশোধনীসহ ব্যাখ্যা প্রদানে স্থানীয় সাংবাদিক সংগঠনসহ প্রথম আলো পত্রিকা সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*