নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা: পানছড়িতে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ: আহত-৭, এলাকায় উত্তেজনা

pan hamaringনিজস্ব প্রতিবেদক: খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি ফাতেমা নগর এলাকায় ইউপি নির্বাচনে জয়-পরাজয়ের জের ধরে ১নম্বর লোগাং ইউপি’র ৯নং ওয়ার্ডের বিজয়ী ও পরাজিত মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের মাঝে সংঘর্ষের ঘটনায় কমপক্ষে ৭জন আহত হয়েছে। রোববার রাত আনুমানিক সাড়ে আটটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। খবর পেয়ে পুলিশ, বিজিবি গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন আনে।

আহতদের মধ্যে ৪জনকে পানছড়ি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দিয়ে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। আহতরা হলেন-ফাতেমা নগর এলাকার মৃত. বদিউল আলমের পুত্র খুরশিদ আলম(২৭), বাছেদ মিয়ার পুত্র রফিকুল আলম (৩০), বাছা মিয়ার ছেলে জাহাঙ্গীর (২২) ও শুক্কর আলীর স্ত্রী লাকী আক্তার (১৯)। অপর তিন জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেলেও নাম পাওয়া যায়নি।

থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আ: জব্বার জানান, ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে বিজিবিকে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ, বিজিবির সহযোগিতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এসেছে। আহতদের উদ্ধার করে পানছড়ি ও খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত খুরশিদ আলম অভিযোগ করেন, ২৩ এপ্রিল ইউপি নির্বাচনে ৯নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার আ: কাদের (বৈদ্যুতিক পাখা) নির্বাচনে পরাজিত হয়ে রাত ৮টার দিকে দেশীয় ধারালো অস্ত্র নিয়ে মহড়া শুরু করে। এক পর্যায়ে দোকানে বসা থাকা অবস্থায় তার বাহিনীর ক্যাডাররা বিজয়ী প্রার্থী মো. খোকন (ফুটবল) প্রতিকের লোকদের উপর হামলা চালায়। এতে উভয় পক্ষের লোকজন আহত হয়। তিনি আরো জানান, কাদের বাহিনীর হামলায় বিজয়ী প্রার্থী খোকন মিয়ার মেয়ে হাসিনা বেগমও আহত হয়েছে। তাকে পানছড়ি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*