নারী পুরুষের সমতা উন্নয়নে পাহাড়ী জনগোষ্ঠির মাঝে বিবাহ নিবন্ধন অনস্বীকার্য্য

IMG_6764নিজস্ব প্রতিবেদক: পাহাড়ী জনগোষ্ঠির মাঝে নারী-পুরুষের সমতা উন্নয়ন ও সকল প্রকার বৈষম্য নিরসনে বিবাহ নিবন্ধন অনস্বীকার্য্য। বিবাহ নিবন্ধন করা সম্ভব হলে সমাজ ব্যবস্থায় শান্তি ও শৃঙ্খলা পরিবেশ বজায় থাকবে এবং প্রথাগত আইন ও আইনি জটিলতার হয়রানি হতে মুক্ত হতে পারবে পাহাড়ী নারী-পুরুষ। এজন্য প্রয়োজন সামাজিক প্রথা, আইন ও রীতিনীতির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে সকল সম্প্রদায়ের প্রথাগত রীতিনীতির সাথে সামঞ্জ্য রেখে বিবাহ রেজিষ্ট্রেশন প্রচলন।

গত শনিবার (২১মে) সকাল ১০টায় খাগড়াপুর মহিলা কল্যান সমিতির হলরুমে অনুষ্ঠিত ’নারী-পুরুষের সমতা উন্নয়ন ও নারীর প্রতি বৈষম্য নিরসনে বিবাহ রেজিষ্ট্রেশনের গুরুত্ব ও করণীয় শীর্ষক’ সেমিনারে আলোচকরা এসব কথা বলেন।

সেমিনারে প্রধান অতিথি’র বক্তব্য রাখেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও শিক্ষানুরাগি খগেশ্বর ত্রিপুরা। তিনি বলেন, পাহাড়ী জনগোষ্ঠির মাঝে বিবাহ নিবন্ধন করা সময়ের দাবী। এ দাবী পুরণ হলে এ সমাজে নারী-পুরুষের মাঝে বিরাজমান বৈষম্য নিরসন হবে। এসময় তিনি চাকমা, মারমা ও ত্রিপুরা সমাজের সকল প্রথাগত রীতিনীতির আলোকে একটি প্রবিধান তৈরী করে স্থানীয় প্রশাসন, আঞ্চলিক পরিষদ, মং সার্কেল ও পার্বত্য জেলা পরিষদের সমন্বয়ের মাধ্যমে যেভাবে প্রবিধানকে আইনী রূপ দেয়া যায় সে প্রক্রিয়ায় বিবাহ নিবন্ধনটি আইনীভাবে স্বীকৃতি দেওয়ার লক্ষ্যে সকলকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করার আহবান জানান।

IMG_6755বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ’র আয়োজনে খাগড়াপুর মহিলা কল্যাণ সমিতির (কেএমকেএস) নির্বাহী পরিচালক শেফালিকা ত্রিপুরার সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা কার্বারী এসোসিয়েশনের সভাপতি রণিক ত্রিপুরা, সহ সভাপতি কংজরী মারমা, নারী নেত্রী নমিতা চাকমা, কেএমকেএস এর সম্পাদিকা শাপলা দেবী ত্রিপুরা। গীতিকা ত্রিপুরার সঞ্চালনায় সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কর্মসূচী সমন্বয়কারী মনিষা তালুকদার। তিনি মূল প্রবন্ধে বিবাহ নিবন্ধন ও আদিবাসী সমাজের প্রেক্ষাপট, বিবাহ রেজিস্ট্রেশনের প্রয়োজনীয়তা, বাংলাদেশে প্রচলিত বিবাহ নিবন্ধনের আইনগত দিক, রেজিস্ট্রেশনের সুফলতা ও ১০ দফা সুপারিশমালা তুলে ধরেন। সেমিনারের মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন জেলা কার্বারী এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক পূর্ণ ভূষন ত্রিপুরা, পেরাছড়া ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা ওয়ার্ড মেম্বার গীতা রাণী ত্রিপুরা, মায়ুং তৈক্লু পাড়ার কার্বারী পূর্ণমনি ত্রিপুরা, জাবারাং-এর কর্মসূচী সমন্বয়ক বিনোদন ত্রিপুরা, জাবারাং এর প্রশাসনিক কর্মকর্তা ধনেশ্বর ত্রিপুরা, সিএইচটি হেডম্যান নেটওয়ার্ক-এর প্রতিনিধি জয় প্রকাশ ত্রিপুরা, কেএমএকএস’র কর্মসূচি সহকারী নিপুল ত্রিপুরা প্রমূখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*