ঘুরে আসনু-আকর্ষণীয় ও দৃষ্টিনন্দন পাহাড়ের রামজাদী

রামজাদীনিজস্ব প্রতিবেদক: প্রাকৃতিক লীলাভূমি পার্বত্য চট্টগ্রাম। তিন পাহাড়ের পর্যটনে এবার যোগ হয়েছে বান্দরবানের রামজাদী বৌদ্ধ ধাতু স্থাপনা। আপনিও ঘুরে আসতে পারেন এই স্পটে। যা ইতোমধ্যে বান্দরবান শহরের বাবুর ঘোনা এলাকায় তিনদিন ব্যাপী ধর্মীয় উৎসবের মাধ্যমে নবযাত্রা শুরু করে এবং গত শনিবার অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে। স্থানীয় সূত্রমতে, এই রামজাদীই হচ্ছে দেশের সবচে বড় বৌদ্ধ ধাতু স্থাপনা। শনিবার ছিল রামজাদীতে মূর্তি স্থাপন ও উৎসর্গ প্রদানের শেষ দিন। রামজাদী অনুষ্ঠানে জেলার ৭টি উপজেলা ছাড়াও খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি, কক্সবাজার, চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে কয়েক হাজার মানুষ যোগ দেন।  রামজাদীর তত্ত্বাবধানে থাকা বৌদ্ধ ভিক্ষু শিল জ্যোতি বড়ুয়া বলেন, ২০০৫ সালে রোয়াংছড়ি সড়কের হদা বাবুর ঘোনা এলাকায় পাহাড়ের উপর জাদীটির নির্মাণ কাজ শুরু হয়। পরে ২০১২ সালে জাদীতে স্থাপন করা হয় বৌদ্ধ মূর্তি ও ধাতু। জাদীটিকে আকর্ষণীয় করতে সোনালী রং দেয়া হয়। এটির অভ্যন্তরে রয়েছে ছোট বড় পিতলের ১০টি বৌদ্ধ মূর্তি। আর জাদীর উপরের অংশে রয়েছে ৯০টি মূর্তি। ১৭৫ ফুট উচ্চতা এটির। যা পাহাড় চূড়ায় অনন্য স্থাপত্য শৈলীর বৌদ্ধ জাদী বলেও তিনি দাবি করেন। প্রাচীন বৌদ্ধ মূর্তির নাম রামজাদী বা রামাজাদী। সমুদ্র পৃষ্ট থেকে এর উচ্চতা প্রায় ১৬শ ফুট। শুক্রবার জাদীতে স্থাপন করা হয়েছে গৌতম বুদ্ধের দেহাবশেষ। জেলাবাসী ও দেশের নানাস্থান থেকে আসা পর্যটকরা বলছেন, রামজাদী একটি বৌদ্ধ ধর্মীয় স্থাপনা ছাড়াও দেশের বৃহত্তম বৌদ্ধ অবকাঠামোগত স্থাপনাও বটে। এটি পর্যটকদের জন্য অন্যতম আকর্ষণীয় ও দৃষ্টিনন্দন একটি স্পট হিসেবেও পরিচিতি লাভ করতে সক্ষম হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*