ঘনচিনি ও ক্ষতিকর রং দিয়ে আইসক্রিম!

Icecreamনিজস্ব প্রতিবেদক: ঘনচিনি (স্যাকারিন) ও মানবস্বাস্থ্যের জন্যে ক্ষতিকর রং দিয়ে আইসক্রিম তৈরি করায় একটি কারখানা সিলগালা করে দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। নগরীর চান্দগাঁও থানার বহদ্দারহাট মোড়ের অদূরে বারৈপাড়া এলাকার ডলফিন আইসবার (তৃপ্তি আইসক্রিম) নামের ওই কারখানা থেকে এক হাজার পিস ভেজাল আইসক্রিম এবং বিপুল পরিমাণ রং ও স্যাকারিন জব্দ করে ধ্বংস করা হয়েছে। আজ সোমবার বিকেলে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. রুহুল আমীনের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়।
ম্যাজিস্ট্রেট রুহুল আমীন জানান, গরমের মৌসুমে বাড়তি চাহিদাকে সামনে রেখে চিনির পরিবর্তে মানবস্বাস্থ্যের জন্যে ঝুঁকিপূর্ণ ও চোরা পথে আসা ঘনচিনি, টেক্সটাইল-ফার্নিচারসহ বিভিন্ন কারখানায় ব্যবহৃত ক্ষতিকর রং ব্যবহার করে আইসক্রিম তৈরি হচ্ছে। ডলফিন আইসবারে আমরা হাতেনাতে প্রমাণ পেয়েছি। রং ও ঘনচিনি দিয়ে তৈরি আনুমানিক এক হাজার পিস আইসক্রিম এবং বিপুল পরিমাণ আইসক্রিম তৈরির ভেজাল উপকরণ জব্দ করে ধ্বংস করেছি। কারখানার মালিক পলাতক থাকায় জেল-জরিমানা করা না গেলেও কারখানাটি সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে।

তিনি জানান, আগের দিন রোববার চান্দগাঁও নূর নগরে অভিযান চালিয়ে কোহিনূর আইসবারকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও কারখানাটি সিলগালা করে দেওয়া হয়েছিল। এছাড়া লাকি আইসবার নামের আরেকটি কারখানা সিলগালা করা হয়েছিল।

Icecream_1ভেজাল ও নিম্নমানের আইসক্রিম খেয়ে শিশু-কিশোররা দ্রুত অসুস্থ হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হচ্ছে জনসচেতনতা সৃষ্টির জন্য। যেকোনো পণ্য, খাদ্যসামগ্রী কেনার আগে অবশ্যই মেয়াদ, ব্যবহৃত উপকরণ ইত্যাদি ভোক্তাদের দেখে নেওয়া উচিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*