খাগড়াছড়ি ক্যান্টনমেন্ট কলেজে ডিউক অব এডেনবরা ইন্টারন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড যাত্রা শুরু

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: খাগড়াছড়ি  ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক  স্কুল ও কলেজে ডিউক অব এডেনবরা ইন্টারন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড চালু করা হয়েছে।  ৭ অক্টোবর খাগড়াছড়ি ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ এবং ডিউক অব এডেনবরা ইন্টারন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড ফাওন্ডেশন, বাংলাদেশের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়।
স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ক্যান্ট: পাবলিক স্কুল ও কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল স.ম. মাহবুব-উল-আলম এবং ডিউক অব এডেনবরা ইন্টারন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড ফাওন্ডেশন বাংলাদেশ’র কান্ট্রি ডিরেক্টর অধ্যাপক ড. কে.এম. শরিফুল হুদা। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ লে. কর্নেল মো: মনিরুজ্জামান খান, ডিউক সহকারী ব্যবস্থাপক (প্রোগ্রাম) খালিদ শাহরিয়ার এবং প্রতিষ্ঠানের অ্যাওয়ার্ড লিডার শিক্ষকবৃন্দ।
চুক্তি স্বাক্ষরের পর প্রতিষ্ঠানের অডিটরিয়ামে ডিউক অব এডেনবরা ইন্টারন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড সম্পর্কে সম্যক ধারনা ভিত্তিক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন ডিউক এর কান্ট্রি ডিরেক্টর অধ্যাপক ড. কে.এম. শরিফুল হুদা, প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ লে. কর্নেল মো: মনিরুজ্জামান খান এবং ডিউক’র সহকারী ব্যবস্থাপক খালিদ শাহরিয়ার । আলোচনা শেষে নির্বাচিত দশজন অ্যাওয়ার্ড লিডারদের নিয়ে একটি কর্মশালার আয়োজন করা হয়।
খাগড়াছড়ি ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ’র অধ্যক্ষ লে. কর্ণেল মোঃ মনিরুজ্জামান খান জানান, ডিউক অব এডেনবরা কর্মসূচি বাংলাদেশের ক্যাডেট কলেজসমূহ এবং অধিকাংশ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজে  চালু রয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় তিন পার্বত্য জেলার মধ্যে খাগড়াছড়ি ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ প্রথম এই কর্মসূচি চালু হলো। তিনি আরো জানান, ডিউক অব এডেনবরা ইন্টারন্যাশনাল এওয়ার্ড’র তিনটি স্তর রয়েছে – ব্রোঞ্জ, সিলভার ও গোল্ড। প্রতিটি স্তরে  শিক্ষার্থীদেরকে  দক্ষতা বৃদ্ধি, স্বেচ্ছাসেবা, চিত্ত বিনোদন এবং দুঃসাহসিক অভিযান-এ চারটি বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করতে হয়। এর মাধ্যমে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীগণ মননশীল মেধা এবং বইয়ের পড়াশোনার বাইরে নিজেদেরকে অনন্য করে তোলার বিশেষ সুযোগ পাবে। পাশাপাশি বিদেশে স্কলারশিপসহ উচ্চ শিক্ষা ক্ষেত্রে এ সার্টিফিকেট বিশেষ সহায়ক হিসেবে ভূমিকা পালন করে থাকে।
প্রসঙ্গত: ডিউক অব এডেনবরা ইন্টারন্যাশনাল এওয়ার্ড একটি অপ্রতিযোগিতামূলক ও আত্ম উৎকর্ষ সাধনের কর্মসূচি যা প্রিন্স ফিলিপ ১৯৫৬ সালে যুক্তরাজ্যে প্রতিষ্ঠা করেন। বাংলাদেশসহ প্রায় ১৪৪টি দেশে এই কর্মসূচি চালু রয়েছে। বিশ্বব্যাপি প্রায় ৮০ লক্ষের অধিক শিক্ষার্থী সফলভাবে এই কর্মসূচি সম্পন্ন করেছে। বাংলাদেশে এর যাত্রা শুরু হয় ২০০৮ সালে এবং বর্তমানে ৮৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এর কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*