খাগড়াছড়িতে ২৫ আগস্ট স্বপ্ন পূরনের পরীক্ষা

পার্বত্যবাণী ডেস্ক: এ যেন খাগড়াছড়ি জেলার বেকার যুবদের স্বপ্ন পূরণের পরীক্ষা। যে পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারলেই মিলবে ‘সোনার হরিন’। মিলবে মহান পেশা শিক্ষকতা। হবে অনেক মেধাবীর ও শিক্ষিত বেকার যুবদের কর্মসংস্থান।

সেই সোনার হরিনের জন্য আগামী ২৫ আগস্ট (শুক্রবার) খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ’র হস্তান্তরিত প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগের সহকারী শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

পাজেপ খাগড়াছড়ির সূত্র জানায়, ইতোমধ্যে পরীক্ষা গ্রহণের জন্য সকল প্রকার প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ। এবছর সহকারী শিক্ষক নিয়োগ লিখিত পরীক্ষায় সকল প্রকার কাগজপত্র যাচাই-বাছাই শেষে পুরো জেলা হতে অংশ নেয়ার সুযোগ পেয়েছে ৩হাজার ২শ ৮৩জন। জেলা সদরের ৫টি কেন্দ্রে এক যোগে সকাল ১০টায় পরীক্ষা শুরু হয়ে বেলা ১২টা পর্যন্ত দু’ঘন্টা লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। তন্মধ্যে খাগড়াছড়ি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮২৫জন, খাগড়াছড়ি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৫০৬জন, নতুন কুঁড়ি ক্যান্ট হাইস্কুলে-৭১০জন, খাগড়াছড়ি ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজে-৫৭৭জন ও খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজে-৬৬৫জন পরীক্ষার্থীর আসন বিন্যাস করা হয়েছে এবং আসন বিন্যাসের রোল নম্বরধারীদের কেন্দ্র বিন্যাসও পরিষদের ওয়েবসাইটে দেয়া হয়েছে।

কৃতিত্বে পাজেপ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী:

স্থানীয়দের ভাষ্যমতে, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী দায়িত্ব গ্রহনের পর জেলার প্রাথমিক শিক্ষা কার্যক্রমে এনেছেন নতুনত্ব ও সৃষ্টি করেছেন দৃষ্টান্ত। ইতোমধ্যে বিনামূলে শিক্ষা ডায়েরি বিতরনের নজিরও স্থাপন করেছেন পাজেপ চেয়ারম্যান। পরিষদের অধিনে শিক্ষক নিয়োগে এর আগে ২০১৩ সালের গত ৩১ জানুয়ারি শূন্য পদে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছিল। প্রার্থীদের পরীক্ষা শেষে খাতা মূল্যায়নের কাজ সম্পন্ন হলেও দুইজন ত্রিপুরা জেলা পরিষদে তাদের প্রতিনিধি না থাকার অজুহাতে হাইকোর্টে রিট পিটিশন করেছিলেন। এর ফলে আদালত নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিত করেছিল। অত:পর ২০১৫ সালের এপ্রিল মাসে সে রিটটি বর্তমান পাজেপ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরীর ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় খারিজ হলে গত বছর শিক্ষক নিয়োগ সম্পন্ন হয় এবং এ বছরও আবারো শিক্ষক নিয়োগ প্রদানে কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*