খাগড়াছড়িতে ভিটামিন ‘এ’ সমৃদ্ধ ভোজ্যতেল ব্যবহারে জনসচেতনামূলক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

oilনিজস্ব প্রতিবেদক: খাগড়াছড়িতে ভোজ্যতেলে ভিটামিন ‘এ’ সমৃদ্ধকরণ, কার্যক্রমের জনসচেতনতা বৃদ্ধি সংক্রান্ত কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে শিল্পমন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়নাধিন ফটিফিকেশন অব এডিবল ওয়েল ইন বাংলাদেশ (ফেইজ-২)শীষক প্রকল্পের আওতায় ও গেইন বাংলাদেশ’র সহযোগিতায় খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

শিল্প মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম প্রধান ও প্রকল্প পরিচালক মো. লুৎফর রহমান তরফদার’র সভাপতিত্বে কর্মশালায় প্রধান অতিথি’র বক্তব্য রাখেন খাগড়াছড়ি পাবত্য জেলা পরিষদের সদস্য শিক্ষানুরাগী খগেশ্বর ত্রিপুরা।

প্রধান অতিথি বলেন, বর্তমান সরকার জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ডিজিটাল বাংলাদেশ ও ২০২১ ভিশন বাস্তবায়ন করার মাধ্যমে একটি সুস্থ জাতি গঠনের পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। কেননা, যে কোন লক্ষ্য উদ্দেশ্যকে বাস্তবায়ন করতে গেলে সুস্থ দেহ ও সুস্থ মন নিয়ে কাজ করার কোন বিকল্প নাই। কর্মশালায় তিনি ভোজ্য তেলে ভিটামিন-এ’ নিশ্চিতকরনে গুরুত্বারোপ করেন এবং সরকারের এ মহতি উদ্যোগ বাস্তবায়নে খাগড়াছড়ি পাবর্ত্য জেলা পরিষদ বদ্ধপরিকর বলে মন্তব্য করেছেন।

এসময় তিনি ভিটামিন ‘এ’ যুক্ত ভোজ্যতেল ব্যবহার নিশ্চিত করার আগে উৎপাদন ও বাজারজাতকরণে গুরুত্বারোপ করেন। এছাড়া প্রধান অতিথি ভিটামিন ‘এ’ ভোজ্যতেল ব্যবহার নিশ্চিতকরনে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে পদক্ষেপ হিসেবে উপজেলা পরিষদ, ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা, শিক্ষা ও ধমীয় প্রতিষ্ঠান, হাট-বাজার এবং সাংস্কৃতিক অঙ্গনে মাইকিং, লিপলেট, পোস্টারিং ও ব্যানার পেস্টুনের ব্যাপক প্রচারনার জন্য কতৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করেছেন। এসময় তিনি সকল গ্রাহককে ভোজ্যতেলে ভিটামিন এ’র মনোগ্রাম দেখে তৈল ক্রয়ের আহবান জানান।

oil-1কর্মশালায় বিশেষ অতিথি’র বক্তব্য রাখেন- খাগড়াছড়ি পাবর্ত্য জেলা পরিষদের প্রধান র্নিবাহী কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান, খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধি হিসেবে সহকারী কমিশনার এস.এম শান্তনু চৌধুরী, পুলিশ সুপারের প্রতিনিধি হিসেবে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সাকেল) মো. রইছ উদ্দিন, খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ড.আবদুস সবুর খান, পাজেপ সদস্য নিগার সুলতানা, সদর ‍উপজেলা চেয়ারম্যান চঞ্চুমনি চাকমা প্রমূখ।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন-শিল্প মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী প্রধান ফররুখ আহাম্মদ, গেইন বাংলাদেশ এর প্রজেক্ট অফিসার সৈয়দ মুনতাসীর বিদোয়ান, ইউনিসেফ’র ডিএনএসও এম. এ রিফাত।

এছাড়াও মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন কৃষি সম্প্রসারণ, খাগড়াছড়ির জেলা প্রশিক্ষণ কমকতা আবুল কাসেম, জেলা মৎস্য কমকতা ড. মানিক মিঞা, জেলা মহিলা বিষয়ক কমকতা মাধবী লতা বড়ুয়া নারী নেত্রী শেফালিকা ত্রিপুরা, বাসন্তী চাকমা প্রমূখ।

প্রসংগত:ভিটামিন এ’র অভাবে অন্ধত্ব, রাতকানা রোগ হয়। এছাড়া এর অভাবে দেহের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়। হাম, ম্যালেরিয়া, এইডস রোগের জটিলতা বাড়ে। শিশুদের শারীরিক বৃদ্ধিতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়, মহিলা ও শিশুদের রক্তস্বল্পতা হতে এবং গর্কালীন সময়ে মৃত্যু ঝুঁকি ও বিঘ্নতা বাড়ে এবং কাযক্ষমতা কমে যায়। ১৯৬০ সাল থেকেই বাংলাদেশ ভিটামিন ‘এ’ স্বল্পতা জনস্বাস্থ্যের জন্য অন্যতম সমস্যা চিহ্নিত করে ভিটামিন ‘এ’ ঘাটতিজনিত সকল স্বাস্থ্যগত দূর করার উদ্দেশ্যে ইউনিসেফ’র কারিগরী ও আথিক সহযোগিতায় শিল্পমন্ত্রণালয় ২০১০সালে ভোজ্যতেলের সাথে ভিটামিন ‘এ’ মিশ্রনের কর্সূচি হাতে নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*