খাগড়াছড়িতে প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নে সনাকের মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

sonakনিজস্ব প্রতিবেদক: খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার গঞ্জপাড়া ও মহালছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার মানোন্নয়নের লক্ষে শিক্ষা কর্তৃপক্ষের সাথে সনাকের সহযোগিতা ও পরামর্শগ্রহন মূলক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ (মঙ্গলবার) জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয়ে টিআইবি এবং সনাকের প্রাথমিক শিক্ষা সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানে কাজের উদ্দেশ্য, লক্ষ্য এবং বিভিন্ন কার্যক্রম বিষয়ে সংক্ষিপ্ত ধারনা প্রদান করেন টিআইবি খাগড়াছড়ির এরিয়া ম্যানেজার মো: তৌহিদুল ইসলাম। সনাক খাগড়াছড়ির সভাপতি প্রফেসর ড. সুধীন কুমার চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার (ভা:প্রা) মো: মানুন কবির, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সনাক খাগড়াছড়ি’র সম্মানিত সদস্য ও শিক্ষা বিষয়ক উপ-কমিটির আহ্বায়ক খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ প্রফেসর বোধি সত্ত্ব দেওয়ান, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা জনাব আব্দুল লতিফ, সনাক সদস্য অধ্যাপক মধু মঙ্গল চাকমা, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা বেলা রানী দাশ, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা এডিন চাকমা, সনাক সদস্য ও নারী নেত্রী শেফালিকা ত্রিপুরা, সনাক সহ-সভাপতি মোঃ জহুরুল আলম, সনাক সদস্য চিংমেপ্রু মারমা ও সনাক সদস্য মো: আবুল কাশেম, মহালছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক সুমি রানী দে ও গঞ্জপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক জোসনা খানম সহ সনাক খাগড়াছড়ি’র সনাক, স্বজন, ইয়েস ও ইয়েস ফ্রেন্ডস সদস্য বৃন্দ এবং টিআইবি’র প্রতিনিধি। সভায় সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বপ্রাপ্ত তথ্য কর্মকর্তাদের নামের ফেষ্টুন হস্তান্তর করা হয়। এরিয়া ম্যানাজারের সঞ্চলনায় সভায় বিদ্যালয়ের শিক্ষার সার্বিক মানোন্নয়ন, বিদ্যালয়ের বিদ্যমান সার্বিক কাঠামোগত ও অবকাঠামোগত সমস্যাবলী ও অনুকরনীয় দৃষ্ঠান্তসমূহ নিয়ে আলোচনা হয়। বিদ্যালয়ের এসএমসি কমিটি সমূহের কার্যকারীতা বৃদ্ধি ও সদস্যদের উপস্থিতি নিশ্চিতকরণ দায় দায়িত্ব, প্রি-প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরীক্ষা ও ফি গ্রহন ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ন বিষয় আলোচনায় উঠে আসে। প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো: মামুন কবির বলেন, সনাকের বিগত দিনের সফল কার্যক্রমের কথা স্মরন করে বিদ্যালয় সমূহে চলমান বিভিন্ন অনিয়ম এর ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহনের আশ্বাস প্রদান করেন এবং বিদ্যালয়ের বার্ষিক পরিকল্পনা বাস্থবায়নে সনাকের সহযোগিতা কামনা করেন। বিদ্যালয়ের কার্যক্রম পরিচালনার বিষয়ে সনাকের পক্ষ থেকে বলা হয় যে, সনাক বা টিআইবি এই বিদ্যালয়ে উন্নয়নে কোন প্রকারের আর্থিক সহযোগীতা করবেনা শুধু মাত্র প্রাতিষ্ঠানিক সীমাবদ্ধতা সমূহ চিহ্নিত করে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে এ্যাডভোকেসি কার্যক্রম পরিচালনা করবে। পাশাপাশি বিভিন্ন সচেতনতামূলক কর্মকান্ডের মাধ্যমে এখানকার অভিভাবকগণের সচেতনতা ও দায়িত্ববোধ বৃদ্ধি পাবে, এলাকার সবার এই বিদ্যালয় সম্পর্কে একটি ইতিবাচক ধারনা তৈরী হবে সর্বোপরি বিদ্যালয়ের সার্বিক শিক্ষার মানোন্নয়ন করা সম্ভব হবে। তবে এজন্য সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা থাকতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*