খাগড়াছড়িতে নৌকার ১৭ জয়ের উচ্ছাস, শুণ্য হাতে বিএনপি, ১৪ জয়ের ধারায় ইউপিডিএফ

IMG_6293মুহাম্মদ আবুল কাসেম: তৃতীয় ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ২৩এপ্রিল খাগড়াছড়ির ৩২ইউনিয়নের ৩০৪টি কেন্দ্রে একযোগে শুরু হওয়া ভোট গ্রহণ বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্যে দিয়ে সম্পন্ন করেছে খাগড়াছড়ি নির্বাচন অফিস ও জেলা প্রশাসন। বিকাল ৪টার পর ভোট গণনা শেষে স্ব-স্ব কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার, উপজেলা রিটার্নিং কর্মকর্তাগণ ফলাফল ঘোষনা করেন। ঘোষিত ফলাফল পর্য্যালোচনায় দেখা যায়, জেলার ৩২টি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ ১৭টি ইউনিয়নে জয় পেলেও ২১টি ইউনিয়নে প্রার্থীতা দিয়ে বিএনপি শুণ্য হাতে নির্বাচনের ইতি টেনেছেন। অপরদিকে, পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠন ইউপিডিএফ, জেএসএস ও জেএসএস (সংস্কার) সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ১৪টি ইউনিয়নে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়ে আধিপত্য রক্ষার পরিচয় দিয়েছেন। এছাড়াও মাটিরাঙা উপজেলায় আওয়ামীলীগের একাধিক বিদ্রোহী প্রার্থী থাকার পরও বিদ্রোহী প্রার্থী জয় পেয়েছে মাত্র-১টিতে।

ফলাফল ঘেটে দেখা যায়, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার ৫ইউপিতে জয়ে পেয়েছে নৌকা-২, স্বতন্ত্র-৩। পানছড়ির ৫ ইউপিতে-নৌকা-২, স্বতন্ত্র-৩, দীঘিনালার ৩ইউপিতে-নৌকা-২, স্বতন্ত্র-১, মহালছড়ির ৪ইউপিতে-নৌকা-১, স্বতন্ত্র-৩। রামগড়ে ২ইউপিতে-নৌকা-২, লক্ষীছড়ির ৩ইউপিতে-স্বতন্ত্র-৩, মানিকছড়ির ৩ইউপিতে-নৌকা-৩, মাটিরাঙার ৭ ইউপিতে নৌকা-৫, স্বতন্ত্র-৩ জয় পেয়েছেন।

খাগড়াছড়ি সদর: রির্টানিং অফিসার উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. কামরুল হাসান ও উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বিপ্লব বড়ুয়ার তথ্যমতে,  খাগড়াছড়ি ইউপিতে- বর্তমান চেয়ারম্যান আম্যে মারমা (নৌকা) ১৬১৮ভোটে বেসরকারীভাবে পুন: নির্বাচিত হন,  নিকটতম প্রতিদ্বন্দী ক্ষেত্র মোহন রোয়াজা (ধানের শীষ)-১১৫৬ভোট পেয়েছেন। কমলছড়ি ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী সাউপ্রু মারমা (আনারস) ২১৩৫ভোটে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হন,  নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সুমন আহম্মেদ(চশমা)১৪১৯ ভোট পান। গোলাবাড়ী ইউপি বর্তমান চেয়ারম্যান জ্ঞান রঞ্জন ত্রিপুরা (নৌকা) ১৭৬৬ ভোটে পুন: নির্বাচিত হন, তার নিকটতম ক্যাউচি মার্মা(চশমা) ১৭১৪ভোট পান। পেরাছড়া ইউপিতে ইউপিডিএফ সমর্থিত তপন বিকাশ ত্রিপুরা(মোটর সাইকেল) ২৯৩৮ভোটে নির্বাচিত হন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান চেয়ারম্যান সঞ্জীব ত্রিপুরা(নৌকা) ২৬৯১ ভোট পান।  ভাইবোনছড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী পরিমল ত্রিপুরা (চশমা) ৪৩৯৫ ভোটে জয়ী হন, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কান্তি লাল দেওয়ান (মোটর সাইকেল) ৪০৯২ ভোট পরাজয়ে স্বাদ নেন।

দীঘিনালা: মেরুং ইউনিয়নে নৌকা প্রতিকে মো. রহমান কবীর রতন ৭০২৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত ও তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি জেএসএস মনোনীত লোচন দেওয়ান (আনারস)৬০৪১ ভোট পেয়েছেন। অপরদিকে, বোয়ালখালী ও কবাখালী ইউনিয়নের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও দীঘিনালা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জওহর লাল চাকমা জানান,  ২ নম্বর বোয়ালখালী ইউনিয়নে জেএসএস মনোনীত চয়ন বিকাশ চাকমা (কালাধন) আনারস প্রতীকে ৪৫৪১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের নিউটন মহাজন পান ২২২৪ ভোট। ৩ নম্বর কবাখালী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত মো. জাহাঙ্গীর হোসেন নৌকা প্রতীক নিয়ে ৪০৫৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতীদ্বন্দ্বী ইউপিডিএফ মনোনীত বিশ্ব কল্যাণ চাকমা পান ৩১৬১ ভোট।

রামগড়: ১নম্বর রামগড় ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে শাহ আলম মজুমদার ৩৩১৩ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদন্ধি বিএনপির মনোনিত প্রার্থী নূর হোসেন নুরু(ধানের শীষ) পেয়েছেন ২১৭৩ ভোট। ২নং পাতাছড়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে  আওয়ামীলীগ সমর্থিত মনিন্দ্র ত্রিপুরা ৪৭৫১ ভোট পেয়ে বেসরকারী ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদন্ধি  আবু বক্কর ছিদ্দিক (ধানের শীষ) পেয়েছেন ১৬৮৯ ভোট ।

মহালছড়ি: মহালছড়ি সদর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ প্রার্থী রতন শীল (নৌকা) ৬৪৫৯ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী জেএসএস সংস্কার সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী সুখময় চাকমা (আনারস) প্রতীকে পেয়েছেন-৩৪৮৪ভোট। মাইসছড়ি ইউনিয়নে ইউপিডিএফ সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী সাজাই মারমা (আনারস) প্রতীকে ৩১৬৪ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী গিয়াস উদ্দিন (নৌকা) প্রতীকে পেয়েছেন-২৫৬৮ ভোট। মুবাছড়ি ইউনিয়নে জেএসএস সংস্কার সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী বাপ্পী খীসা (আনারস) প্রতীকে ২৯৬৪ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি আওয়ামীলীগ সমর্থিত কংজরী চৌধুরী নৌকা প্রতিকে পেয়েছেন-১১৪৫ভোট। ক্যায়াংঘাট ইউনিয়নে ইউপিডিএফ সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী বিশ্বজিত চাকমা (আনারস) প্রতীকে ১৫৫৩ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী জেএসএস সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রাথী সুনীল জীবন চাকমা (ঘোড়া প্রতীকে ৮৬২ ভোট পান।

পানছড়ি: ১নং লোগাং ইউপিতে ইউপিডিএফ সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রত্যুত্তর চাকমা (অটোরিকশা) প্রতীকে ২২৫৯ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি স্বতন্ত্র প্রার্থী পেয়েছেন জয় কুমার চাকমা (মোটর সাইকেল) ১৪৪৫ ভোট। ২নং চেংগী ইউনিয়নে- ইউপিডিএফ সমর্থিত কালাচাদ চাকমা (টেবিল ফ্যান) ১৬৮৬ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থী পেয়েছেন স্বতন্ত্র নব কুমার চাকমা (আনারস)৭৭১। ৩নং পানছড়িতে নৌকা প্রতীক নিয়ে ৫০৯৮ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামীলীগ প্রার্থী নাজির হোসেন ও তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী ইউপিডিএফ সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রিয়ংকর চাকমা পেয়েছেন-৩০৬৫ভোট। ৪নং লতিবান ইউপিতে আওয়ামীলীগ প্রার্থী কিরণ ত্রিপুরা নৌকা প্রতীকে ১৯৪২ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি ইউপিডিএফ সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী শান্তি জীবন চাকমা (আনারস) পেয়েছেন-১৭৮৬। ৫নং উল্টাছড়িতে ইউপিডিএফ সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয় চাকমা (আনারস) ৩০১১ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মো. আবু  তাহের (চশমা) পেয়েছেন ২৬৫৫ ভোট।

লক্ষীছড়ি: সদর ইউনিয়নে আনারস প্রতীকের প্রার্থী প্রবিল কুমার চাকমা ৩১২৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি আওয়ামীলীগের লেলিন কুমার চাকমা(নৌকা) পেয়েছেন ১৩৪৩ ভোট। এদিকে দুল্যাতলী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ত্রিলন চাকমা দয়া ধন (চশমা) ১৮৭৫ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে বিজয়ী হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি স্বতন্ত্র প্রার্থী উচাই প্রু মারমা (আনারস) পেয়েছেন ১১১৭ ভোট। বর্মাছড়ি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে হরিমোহন চাকমা (আনারস)৩১৭৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। নিকটতম প্রতদ্বন্ধি আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী নিলবর্ন চাকমা পেয়েছেন ৩০১ ভোট।

মানিকছড়ি: ১নং মানিকছড়ি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ  প্রার্থী মো.শফিকুর রহমান ফারুক ৬৪৫৮ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি বিএনপি প্রার্থী মো. আবুল কাশেম পেয়েছেন ৩১৬৭ ভোট। ২নং বাটনাতলী ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের প্রার্থী মো.শহীদুল ইসলাম মোহন ৪০৪০ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি বিএনপি প্রার্থী মো. আবদুল কাদের ২৫৯৬ ভোট পান।অপরদিকে, তিনটহরী ইউনিয়নে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী যুবদল নেতা মো. জাকির হোসেন সিরাজের মনোনয়ন বাতিল হওয়ায় আ’লীগের সভাপতি  মো. রফিকুল ইসলাম বাবুল বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

মাটিরাঙা: ১নং তাইন্দং ইউনিয়নে-স্বতন্ত্র প্রার্থী হুমায়ুন কবির (আনারস) ২৭১০ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাব নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি আওয়ামীলীগ প্রার্থী তাজুল ইসলাম (নৌকা) পেয়েছেন-২৫৬১ভোট। ২নং তবলছড়ি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ প্রার্থী মো. আ: কাদের (নৌকা) ৪৮১১ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আবুল কাশেম ভূইয়া (আনারস) পেয়েছেন-১৯৯৮ ভোট। ৩নং বড়নাল ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ প্রার্থী আলী আকবর ভূইয়া (নৌকা) ২০৭৩ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী আ’লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী জামাল হোসেন (আনারস) পেয়েছেন-১৫৮৮ ভোট। ৪নং গোমতি ইউনিয়নে আ’লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী ফারুক হোসেন লিটন (আনারস) ২৮৯২ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি আ’লীগ প্রার্থী তোফাজ্জল হোসেন (নৌকা) পেয়েছেন-১৫৮৮ ভোট। ৫নং বেলছড়ি ইউনিয়নে আ’লীগ প্রার্থী নজরুল ইসলাম (নৌকা) ৩১২৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী বিএনপির প্রার্থী হারুন অর রশিদ (ধানের শীষ) পেয়েছেন-২২০২ ভোট। অপরদিকে, মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়নে হিরণজয় ত্রিপুরা (নৌকা) ও আমতলী ইউনিয়নে আব্দুল গণি (নৌকা) বেসরকারিভাবে নির্বাচিত।

প্রসংগত: খাগড়াছড়ি জেলার ৩৩টি ইউনিয়নে-চেয়ারম্যান পদে-খাগড়াছড়ি জেলা সদরের ৫টি ইউনিয়নে ২৬জন, পানছড়ি উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে ২৬জন, লক্ষীছড়ি উপজেলার ৩টি ইউনিয়নে-১১জন, মহালছড়ি উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে-১৬জন, মানিকছড়ি উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে ৮জন, দীঘিনালার ৩টি ইউনিয়নে ১৫জন, রামগড় উপজেলার ২টি ইউনিয়নে-৭জন, মাটিরাঙা উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে ২৬জন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধিতা করেছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*