খাগড়াছড়িতে নিয়োগ পরীক্ষায় অনুপস্থিতির রেকর্ড ! বহিস্কার-১

নিজস্ব প্রতিবেদক: বহুল প্রত্যাশিত ও দীর্ঘদিন ঝুঁলে থাকা খাগড়াছড়িতে সরকারি প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় অনুপস্থিতির যেন নব রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছে।  লিখিত পরীক্ষায় সুযোগ পাওয়া ৩হাজার ২শ ৯৩জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে অনুপস্থিত ছিল ১হাজার ৩শ ৫৭জন। একাধিক প্রার্থীরা জানান, একই সময়ে সারাদেশে শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা থাকায় একই প্রার্থী দুই পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেনি।

এদিকে, পরীক্ষায় অসুদপায়ের দায়ে বহিস্কার হয়েছেন এক পরীক্ষার্থী। জানা গেছে, বহিস্কৃত প্রার্থী জেলা ছাত্রলীগের একটি পদে রয়েছেন। বহিস্কৃত প্রার্থীর রোল নং-২৪৩৬।

আজ (২৫ আগস্ট) শুক্রবার সকাল ১০টায় একযোগে জেলা সদরের ৬টি কেন্দ্রে ২ঘন্টা ব্যাপি লিখিত পরীক্ষা শেষে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ও সহকারী শিক্ষক বাছাই ও নিয়োগ কমিটির সদস্য সচিব ফাতেমা মেহের ইয়াছমিন স্বাক্ষরিত এক বিবরণীতে এসব তথ্য জানানো হয়।

অপরদিকে,পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে পরীক্ষা কেন্দ্র ও কেন্দ্রের বাহিরে ছিল নজরকড়া কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে একাধিক পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করেছেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী।

তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, বর্তমান চেয়ারম্যান দায়িত্ব গ্রহণের পর প্রথমবারের ন্যায় জেলার প্রাথমিক শিক্ষার মান উন্নয়নে পুরুষ প্রার্থীদের স্নাতক বা সমমান ডিগ্রী ২য় বিভাগ ও মহিলা প্রার্থীদের উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাগত যোগ্যতারি বিধি রেখে ২০১৫ সালের ৫ আগস্ট নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন। যা বিগত নিয়োগ গুলোতে ছিল সকল প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি ও এসএসসি সমমান।

কিন্তু এর আগের সময়কার পরিষদবর্গের আমলে ২০১৩ সালের গত ৩১ জানুয়ারি শূন্য পদে শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হলেও চাকুরী প্রার্থীদের আবেদনমূলে হাইকোর্টে রিট পিটিশন হওয়ায় দীর্ঘদিন ঝুঁলে থাকে সেই নিয়োগ পরীক্ষা। পরে বর্তমান চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী  ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় অবশেষে ২০১৫ সালের এপ্রিল মাসে সে রিটটি খারিজ হলে গত বছর কিছু শিক্ষক নিয়োগ সম্পন্ন করে বর্তমান পরিষদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*