খাগড়াছড়িতে ডাবল মার্ডার ঘটনায় দুই পাজেপ সদস্যসহ ৬৪জনকে আসামী করে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক:  খাগড়াছড়ি জেলা সদরের থলিপাড়ায় পারিবারিক দ্বন্ধ ও সামাজিক জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় চিরঞ্জয় ত্রিপুরা ও তার পুত্র কর্ণ জ্যোতি ত্রিপুরা হত্যাকান্ডে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য খোকনেশ্বর ত্রিপুরা ও মংসুইপ্রু চৌধুরী এবং আওয়ামীলীগের একাধিক নেতাকর্মীসহ ৩৪জনকে আসামী করে সদর থানায় মামলা হয়েছে।

শুক্রবার রাতে নিহত চিরঞ্জয় ত্রিপুরার ছেলে নিহার কান্তি ত্রিপুরা বাদি হয়ে এজাহার দায়ের করলে আসামীদের বিরুদ্ধে কুপিয়ে হত্যাসহ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ২০০০ আইন ও বিভিন্ন ধারা উল্লেখ করে মামলা গ্রহণ করেন সদর থানার অফিসার ইনচার্জ তারেক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান। মামলা নং-০৪। সদর থানার অফিসার ইনচার্জ সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ৩৪জনের নাম উল্লেখ করে ৩০জন অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামীকে করে মামলা লিপিবদ্ধ করা হয়। পুলিশ আসামীদের গ্রেফতারে সর্বাত্নক চেষ্টা চালাচ্ছে।

এদিকে, পিতা-পুত্রকে নৃশংসসভাবে (ডাবল মার্ডার) হত্যার ঘটনায় শুক্রবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু তদন্ত, প্রকৃত খুনীদের গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্ত শাস্তির দাবী জানিয়েছেন খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগ। বিবৃতিতে জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক পাজেপ সদস্য নির্মলেন্দু চৌধুরী  ন্যায়-বিচারের স্বার্থে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে অপরাজনীতির পায়তারা থেকে সজাগ থাকতে জেলাবাসীসহ প্রশাসনকে সজাগ থাকার আহবান জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, পাজেপ সদস্য মংসুইপ্রু চৌধুরী খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের যুব বিষয়ক সম্পাদক ও পাজেপ সদস্য খোকনেশ্বর ত্রিপুরা সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

এর আগে শুক্রবার সকালে জেলা আওয়ামীলীগের একাংশ জেলা শহরে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে প্রশাসনকে ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম ছুঁড়ে দেন।

প্রসঙ্গত: বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে জেলা সদরের থলিপাড়া এলাকায় কালিবন্ধু ত্রিপুরা ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীর হামলায় গ্রামবাসী চিরঞ্জয় ত্রিপুরা ও তার ছেলে কর্ণ জ্যোতি ত্রিপুরা নিহত এবং চিরঞ্জয় ত্রিপুরার স্ত্রী ভবেলক্ষী ত্রিপুরা ও ছেলে কর্ণ জ্যোতি ত্রিপুরার স্ত্রী বিজলি ত্রিপুরা গুরতর আহত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*