কথিত নাগরিক কমিটি পাহাড়ের সম্প্রীতিতে প্রাচীর তৈরী করছে: কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

DSC_4832নিজস্ব প্রতিবেদক: খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার সাংসদ কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেছেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে পার্বত্য চট্টগ্রামে বসরবাসরত সকল জনগোষ্ঠির মাঝে যে সম্প্রীতি সুদৃঢ় বন্ধন  তৈরী হয়েছে তা বিনষ্ঠ করতে সম্প্রতি কথিত নাগরিক কমিটির নামে একটি কুচক্রিমহল প্রাচীর তৈরি করছে।
তিনি আজ (শনিবার) সকালে জেলার মাটিরাঙা থানা প্রাঙ্গনে কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির উদ্যোগে পৌরসভার নব নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের সংবর্ধনা ও সূধী সমাবেশে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, আমরা সবাই বাংলাদেশের নাগরিক। জেলা পর্যায়ে নাগরিক কমিটি বলতে মূলত কোন কমিটিই নেই। এটি মূলত: ব্যবহৃত হয় নির্বাচনের সময়, যখন কোন প্রার্থী কোন রাজনৈতিক দলের প্রার্থী হিসেবে অবিবেচ্য হন। সম্প্রতি সময়ে মাটিরাঙা সহ বিভিন্ন উপজেলায় তথাকথিত নাগরিক কমিটির নামে যে কমিটি তৈরির নাকট মঞ্চত্ব করা হচ্ছে তা উদ্দেশ্য প্রনোদিত হয়ে পাহাড়ী-বাঙালির মধ্যে সম্প্রীতি বিনষ্ঠ করার জন্যই করা হচ্ছে। মারমা, চাকমা ও ত্রিপুরা সম্প্রদায়সহ সকল সম্প্রদায়ের অংশ গ্রহন ছাড়া শুধুমাত্র কয়েকজন পথভ্রষ্ট বাঙালী লোকজন দিয়ে কথিত কমিটি সমাজের কোন মংগল ও উন্নয়ন  বয়ে আনতে পারবে না। বরং উদ্দেশ্য প্রনোদিত ভাবে কথিত এ কমিটি পাহাড়ী-বাঙালীর মাঝে বিশ্বাস ও আস্থার মধ্যে দেয়াল নির্মাণ করে দিয়ে স্বার্থ হাসিল করার অপচেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছে। এসময় তিনি সকলকে এধরনের কথিত নাগরিক কমিটিকে প্রতিহত করার আহবান জানিয়ে আরো বলেন, সকল জনগোষ্ঠির মধ্যে ঐক্যের সুদৃঢ় বন্ধনের মাধ্যমে খাগড়াছড়ির উন্নয়নে জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার আন্তরিক। তিনি থানা এলাকায় আইন শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের স্বার্থে পুলিশ বান্ধবদের সম্মাননা প্রদানের ব্যতিক্রম অনুষ্ঠান আয়োজনে উদ্যোগ নেয়ায় থানা অফিসার ইনচার্জ মো. সাহাদাত হোসেন টিটোকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
DSC_4846অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি’র বক্তব্যে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী বলেছেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানের স্বপ্ন বাস্তবায়নে খাগড়াছড়িতে সকল সম্প্রদায়ের মাঝে সম্প্রীতি অটুট ও উন্নয়নে সাংসদ কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরার নেতৃত্বে আমরা সকলেই ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করছি। তিনি সমাজের অপরাধ নিয়ন্ত্রণ ও শান্তি স্থাপনে পুলিশিং কমিটিকে আরো বেশী তৎপর থাকার আহবান জানান।
এসময় বিশেষ অতিথি’র বক্তব্যে জেলা পুলিশ সুপার মজিদ আলী (বিপিএম) সেবা আইন শৃংখলা রক্ষার স্বার্থে ও অপরাধির ক্ষেত্রে পুলিশ পাহাড়ী-বাঙালি শ্রেণিভেদ না করে সঠিক আইন প্রয়োগের মধ্যে দিয়ে পুলিশী কার্যক্রম অব্যাহত রাখার পরামর্শ দেন।
এছাড়া অনুষ্ঠানে খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাবের দ্বিতীয়বারের ন্যায় নির্বাচিত সভাপতি জীতেন বড়ুয়া তাঁর বক্তব্যে সম্প্রতি মাটিরাঙায় মোটর সাইকেল চালক শান্ত হত্যায় সৃষ্ট উত্তেজনা বৃদ্ধিতে যে সকল কু-চক্রিমহল সামাজিক নেটওয়ার্কে (ফেইসবুকে) মিথ্যা তথ্য দিয়ে অপপ্রচার চালিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রামে উত্তেজনা সৃষ্টি করার অপচেষ্টা চালিয়েছে তাদের চিহ্নিত করে গ্রেফতারের দাবী জানান।
মাটিরাঙা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সাহাদাত হোসেন টিটো’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মাটিরাঙা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিএম মশিউর রহমান, মাটিরাঙা পৌরসভার নব নির্বাচিত মেয়র মো. শামসুল হক, মাটিরাঙা উপজেলার সমন্বয় কমিটির সভাপতি এম.এম জাহাঙীর আলম, মাটিরাঙা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিরনজয় ত্রিপুরা, ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলাউদ্দিন লিটন প্রমূখ। পরে অনুষ্ঠানের ২য় পর্বে মাটিরাঙা থানার ২০জন পুলিশ বান্ধব ব্যক্তিদের হাতে ক্রেষ্ট তুলে দেন অতিথিবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*