উৎসাহ উদ্দীপনা ও ধর্মীয় ভাব গাম্ভীর্য্যে শান্তিপুর অরণ্যকুটির বিহারাধাক্ষ্যের ৫২তম জন্মবার্ষিকী পালিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: উৎসাহ উদ্দীপনা ও ধর্মীয় ভাব গাম্ভীর্য্যরে মধ্যে পালিত হয়েছে খাগড়াছড়ি জেলার সীমান্তবর্তী পানছড়ি শান্তিপুর অরণ্যকুটির বিহারাধাক্ষ্য মৈত্রী লাভী শ্রদ্ধেয় শ্রীমৎ শাসন রক্ষিত মহাস্থবিরের ৫২তম জন্মবার্ষিকী।
এ উপলক্ষে আজ  (সোমবার) সকালে শান্তিপুর অরণ্য কুটির বেইনঘরে ৬ষ্ঠবারের মতো শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ, বুদ্ধ পূজা, সীবলী পূজা, বুদ্ধমূর্তিদান, সংঘদান, অষ্টপরিস্কারদান, হাজারপ্রদীপ দান, কেকদান, পিন্ডদানসহ নানাবিধ দানানুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণসহ প্রধান অতিথি’র বক্তব্য রাখেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী। এর আগে প্রধান অতিথি পাজেপ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী অরণ্যকুটিরের লেকে পোণামাছ অবমুক্ত করেন এবং রঙিন বেলুন উড়িয়ে অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন পানছড়ি ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ অরণ্যকুটির পরিচালনা কমিটির সভাপতি সমীর দত্ত, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের অন্যতম সদস্য, শিক্ষানুরাগী ও পাহাড়ের বরণ্য লেখক খগেশ্বর ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা প্রিয় কুমার চাকমা সহ প্রমূখ।
এদিকে, শ্রীমৎ শাসন রক্ষিত মহাস্থবিরের ৫২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে জেলার দুর-দুরান্ত থেকে শত শত পূর্ণার্থীরা বিভিন্ন যানবাহনে করে ভীড় জমায় অরণ্যকুটিরে।
 ধর্মানুরাগী- পাজেপ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী:
এবার ধর্মানুরাগী হিসেবে পাজেপ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরীকে  আখ্যায়িত করেন পানছড়ি অরণ্যকুটির পরিচালনা কমিটি ও বিহারাধাক্ষ্য  শ্রদ্ধেয় শ্রীমৎ শাসন রক্ষিত মহাস্থবিরের ৫২তম জন্মবার্ষিকী পালন উদযাপন  অনুষ্ঠানের আয়োজকবৃন্দ। আয়োজকবৃন্দের পক্ষ হতে অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ও খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের অফিস সহকারী রনেল চাকমা বলেন, বর্তমান পার্বত্য জেলা পরিষদ একজন ধর্মানুরাগী। ধর্মের প্রতি তিনি খুবই শ্রদ্ধাশীল ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান সমূহের উন্নয়নে আন্তরিক। এই রকম ধর্মানুরাগী ব্যক্তিকে পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে নিযুক্ত ও মনোনয়ন প্রদান করায় স্থানীয়রা খাগড়াছড়ি জেলার সাংসদ কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
এর আগে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পাজেপ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী দাবীর প্রেক্ষিতে কুটিরের যাতায়াতের ইটসলিং রাস্তাটি অতিশীঘ্রই পিছঢালা করণে আশাবাদ ব্যক্ত করে জানান, রাস্তাটির বিষয়ে এলজিইডি প্রকৌশলীকে অবহিত করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*